মহানন্দার তীরে দাঁড়িয়ে দেখুন কাঞ্চনজঙ্ঘা 0 318

হাত বাড়ালেই যেন শ্বেতশুভ্র হিমালয়! আর একটু এগোলেই হয়তো ছুঁয়ে ফেলা যাবে চোখ জুড়ানো মন ভোলানো বরফ ঢাকা পর্বতটাকে। হিমালয় মানেই এক বিস্ময়কর রহস্য, ভয়ঙ্কর সৌন্দর্য! বিভেদের কাঁটাতার পেরিয়ে যাদের পর্বতটাকে দেখার সৌভাগ্য হয় না তারা এখন দেশের মাটিতে বসেই দেখতে পারেন পৃথিবীর সবচেয়ে বড় পর্বতমালা হিমালয়কে।

দেশের সর্ব উত্তরের জেলা পঞ্চগড়ের বিভিন্ন জায়গা থেকে দেখা মেলে এই পর্বতশৃঙ্গটির। জেলার সর্ব উত্তরের উপজেলা তেঁতুলিয়া থেকে ভারতের কাঞ্চনজঙ্ঘা আর হিমালয়ের দূরত্ব খুব কাছেই। তেঁতুলিয়া ডাকবাংলোতে দাঁড়িয়ে বা আর একটু এগিয়ে বাংলাবান্ধা গিয়ে উত্তরের মেঘমুক্ত আকাশে তাকালেই চোখে পড়ে কাঞ্চনজঙ্ঘা আর হিমালয়ের মন হরণকারী দৃশ্য। মনোরম আবহে প্রকৃতির এই অপরূপ সৌন্দর্য ভ্রমণ পিপাসুদের মনে এক অপার্থিব ঘোরের সৃষ্টি করে। তেঁতুলিয়া ডাকবাংলোর পাশ ঘেঁষে বয়ে যাওয়া মহানন্দা নদীর পারে গিয়ে দাঁড়ালে দেখা যায় সূর্যের বর্ণিল আলোকচ্ছটায় উদ্ভাসিত এভারেস্ট শৃঙ্গ।

তাই বিকেল হলেই ডাকবাংলো এবং বাংলাদেশ-ভারত সীমান্ত ঘেঁষে চলা মহানন্দা নদীর তীরে বসে প্রকৃতিপ্রেমীদের আড্ডা। সন্ধ্যা নামার আগে ভিন্ন রূপের মহানন্দা হৃদয় হরণ করে পর্যটকদের। হিমালয় থেকে বয়ে আসা ঠাণ্ডা বাতাস দোলা দিয়ে যায় সবার মনে। বাংলার আকাশে যে সূর্য ওঠে ভোরে, সন্ধ্যায় আবার সেই সূর্য ডুব দেয় প্রতিবেশী দেশের হিমালয়ের কাঞ্চনজঙ্ঘার আড়ালে।

হাজার বছরের ঐতিহ্যমণ্ডিত বাংলাদেশের সর্ব উত্তরের জনপদ হিমালয় কন্যাখ্যাত পঞ্চগড়। পুণ্ড্র, গুপ্ত, পাল, সেন ও মুসলিম শাসনামলের ইতিহাস ঐতিহ্যে সমৃদ্ধ এ জনপদ। সেইসঙ্গে রয়েছে অপরূপ প্রাকৃতিক সৌন্দর্য। তেঁতুলিয়ায় রয়েছে বাংলাবান্ধা জিরোপয়েন্ট। এখানেই অবস্থিত বাংলাদেশ-ভারত-নেপাল-ভুটানের মধ্যে ব্যবসা-বাণিজ্যের একমাত্র সম্ভাবনাময় বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর। সেইসঙ্গে রয়েছে ইমিগ্রেশন ব্যবস্থা। যাতে প্রতিদিন শত শত পর্যটক এই বাংলাবান্ধা ইমিগ্রেশন অতিক্রম করে ভিনদেশে গমন করেন। নিত্যদিন দেশের জিরোপয়েন্ট দেখতে ভিড় লেগেই রয়েছে পর্যটকদের। ভিড় করছেন দেশ-বিদেশের বিভিন্ন প্রান্তের ব্যবসায়ীরাও।

পঞ্চগড়ের অনন্য আরেক দিক হলো এখানকার সবুজের নিসর্গ চা বাগান। দেশে একমাত্র এখানেই সমতল ভূমিতে চা চাষ হয়। জেলার চা বাগানগুলোতে সবুজারণ্যে চা গাছ থেকে পাতা তোলার দৃশ্য দেখে চোখ জুড়িয়ে আসে। পর্যটকদের কাছে পঞ্চগড়ের আকর্ষণীয় জায়গা ও স্থাপনার মধ্যে আরো রয়েছে মোঘল স্থাপনা মির্জাপুর শাহী মসজিদ, বার আউলিয়ার মাজার, সনাতন ধর্মের সতীর গোড়ালী সমৃদ্ধ বোদেশ্বরী মন্দির, ভূগর্ভস্থ পাথর তোলার দৃশ্য, ১৫০০ বছরের পুরাতন সুবিশাল মহারাজার দীঘি, দেশের অন্যতম বৃহৎ প্রত্নতত্ত্ব নিদর্শন ভিতরগড় দূর্গনগরী ও দেশের একমাত্র পাথরের যাদুঘর ‘রক্স মিউজিয়াম’। এছাড়া এই এলাকার মাটির নিচে পাথর থাকায় এই জেলার ভূগর্ভস্থ পানি অত্যন্ত ঠাণ্ডা ও সুস্বাদু।

Previous ArticleNext Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Most Popular Topics

Editor Picks